৪টি ককটেল, ১১টি মোটরসাইকেল ও ৪টি গাড়ির টায়ার উদ্ধার

জীবননগরে নাশকতার পরিকল্পনাকালে বিএনপির ৪ নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার


আজকের চুয়াডাঙ্গা➤ জীবননগর প্রতিবেদক প্রকাশের সময় : অক্টোবর ৩১, ২০২৩, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ
জীবননগরে নাশকতার পরিকল্পনাকালে বিএনপির ৪ নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার

জীবননগরে বিএনপির ডাকা তিন দিনের অবরোধ কর্মসূচির সমর্থনে মিছিল ও নাশকতার পরিকল্পনাকালে চার নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় ৪টি ককটেল, ১১টি মোটরসাইকেল, ৪টি গাড়ির টায়ার ও কয়েকটি বাঁশের লাঠি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- আন্দুলবাড়ীয়া খাঁ-পাড়ার শেখ লিয়াকত আলীর ছেলে ও জীবননগর থানা কৃষক দলের সহসভাপতি আরিফুজ্জামান আরিফ (৪০), আন্দুলবাড়ীয়া বেনেপাড়ার মৃত মুনছুর আলীর ছেলে ও চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের সহসভাপতি মোল্লা ফয়েজ উদ্দিন (৪৩), পাথিলা মাঝপাড়ার মৃত রায়হান শেখের ছেলে ও বাঁকা ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইনামুল শেখ (৩৫) ও রায়পুর সর্দ্দার পাড়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে যুবদলের সদস্য নাঈম শেখ (২৩)।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ছয়টার দিকে জীবননগর পৌর ৮ নম্বর ওয়ার্ড বসুতি পাড়ায় জীবননগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন ময়েনের বাড়ির সামনে এ অভিযান চালায় পুলিশ।

জীবননগর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জীবননগর থানার পুলিশ গোপনে সংবাদ পায় বিএনপি নেতা মঈন উদ্দিন ময়েনের বাড়ির সামনে থেকে অবরোধ সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল ও নাশকতার উদ্দেশ্যে বিএনপির নেতা-কর্মীরা একত্রিত হয়েছে। পরে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জাবিদ হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে অভিযান পরিচালনা করে।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জীবননগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন ময়েনসহ নেতা-কর্মীরা দেীঁড় দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় ধাওয়া করে বিএনপির চার নেতা-কর্মীকে আটক করে পুলিশ। পরে ঘটনাস্থল থেকে লাল টেপ দিয়ে মোড়ানো ৪টি ককটেল, ১১টি মোটরসাইকেল, ৪টি গাড়ির টায়ার ও বাঁশের লাঠি উদ্ধার করা হয়।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জাবিদ হাসান বলেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য ছিল, বিএনপির অবরোধ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে জনমনে ভীতি সৃষ্টি ও নাশকতার উদ্দেশ্য বিএনপির নেতা-কর্মীরা একত্রিত হয়েছে। তারা অবরোধ সমর্থনে একটি মিছিলও বের করতে চেয়েছিল। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ২০-৩০ জন দৌঁড়ে পালিয়ে যায়।

এসময় বিএনপির চার নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে চারটি ককটেল, ১১টি মোটরসাইকেল ও গাড়ির টায়ার উদ্ধার করা হয়।’ ওসি জানান, এ ঘটনায় মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।

আজকের চুয়াডাঙ্গা এর সংবাদ সবার আগে পেতে Follow Or Like করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা এর ফেইসবুক পেজ এ , আজকের চুয়াডাঙ্গা এর টুইটার এবং সাবস্ক্রাইব করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা ইউটিউব চ্যানেলে