জীবননগরে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাদিকুর রহমান বকুলের ‘সশস্ত্র’ মহড়া

উথলীতে গাড়ি ও দোকানপাটে হামলা-ভাঙচুর-লুটপাট, আহত ৫


আজকের চুয়াডাঙ্গা ➤ নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৫, ২০২৩, ৪:২৭ পূর্বাহ্ণ
উথলীতে গাড়ি ও দোকানপাটে হামলা-ভাঙচুর-লুটপাট, আহত ৫

বকুলের দাবি, এমপি টগরের লোকজন অতর্কিতভাবে পিছন থেকে হামলা করেছে

জীবননগর উথলীতে গাড়ি ও দোকানপাটে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাদিকুর রহমানের বকুলের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ হামলায় পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে

আহতরা হলেন- উথলী মাঝপাড়ার আ. লতিফের ছেলে ভ্যানচালক রিজু মিয়া (৫০), সিংনগর গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে নাজমুল (২৬), উথলী মোড় এলাকার ওয়াজ বক্সের ছেলে শাহাবুল (৩৫), একই এলাকার নুরু মণ্ডলের ছেলে প্রতিবন্ধী জিয়া উদ্দিন (৩৩) ও উথলী গ্রামের ইবাদত আলীর ছেলে আসানুর (৩০)। মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে বিকেলে ‘রাম দা, চাপাতি, চাইনিজ কুড়াল ও কাঠের স্টাম্প’ নিয়ে সাদিকুর রহমান বকুলের নেতৃত্বে জীবননগর শহরে মোটসাইকেল শোডাউন করে তার সমর্থিত নেতা-কর্মীরা। এসময় জীবননগর বাসস্ট্যান্ডে কয়েকটি ‘ককটেল’ বিস্ফোরণ ও সড়কের ওপর আগুন জ্বালায় তারা। পরে পুলিশ এসে আগুন নেভায়।

জীবননগর বাসস্ট্যান্ডে অস্ত্রসহ মহড়া

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে জীবননগরের দিক থেকে মোটরসাইকেল শোডাউন নিয়ে আসছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাদিকুর রহমান বকুল। এসময় গাড়ির সাইড দেওয়াকে কেন্দ্র করে জীবননগর-দর্শনা আঞ্চলিক মহাসড়কে উথলী ডিগ্রি কলেজের সামনে বকুলের কর্মী-সমর্থকদের সাথে পিকআপ চালকের কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে কাঁচামাল ভর্তি পিকআপের গ্লাস ভাঙচুর করে বকুলের কর্মী-সমর্থকরা। পরবর্তীতে তাঁরা আবার ওই পিকআপ ভাঙচুর করতে গেলে প্রতিরোধের মুখে পড়ে। এসময় হামলাকারীদের কয়েকটি মোটরসাইকেলও ভাঙচুরের শিকার হয়। এতে বকুলের কর্মী-সমর্থকরা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে জনবল বাড়িয়ে উথলী বাসস্ট্যান্ডে এসে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে কয়েকটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি সাধন ও লুটপাট করে।

তারা বাজারের মেসার্স নাজমুল গ্লাস অ্যান্ড অ্যালমিনিয়াম, তুষার ফাস্ট ফুড অ্যান্ড স্টেশনারিজ, মা মটরস, শাহাবুল স্টোর এবং প্রতিবন্ধী জিয়ার চায়ের দোকান ভাঙচুরসহ পাঁচজনকে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় ভয়ে দোকানপাট ফেলে পালিয়ে যান বাজারের ব্যবসায়ীরা। খবর পেয়ে জীবননগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। পরে চুয়াডাঙ্গার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) জাকিয়া সুলতানাসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উথলীতে দোকানপাট ভাঙচুর

নাজমুল গ্লাস অ্যান্ড অ্যালুমিনিয়াম হাউজের স্বত্ত্বাধিকারী নাজমুল জানান, ‘আমি দোকানের শার্টার নামিয়ে মাগরিবের নামাজ পড়ে এসে দেখি আমার দোকানের শার্টারে হাসুয়া ও চাইনিজ কুড়াল দিয়ে আঘাত এবং দোকানে প্রবেশ করে ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়েছে। দোকানে থাকা গ্লাস সব ভেঙে চুরমার করে ফেলেছে। এতে আমি চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।’

তেলের দোকানদার সাহাজুল জানান, ‘মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বকুলের লোকজন আমার দোকানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরসহ দোকানে থাকা কয়েকশ লিটার ডিজেল ও পেট্রল লুটপাট করে নিয়ে গেছে। আমি একজন প্রতিবন্ধী মানুষ। আমি এখন কি করে খাবো ভেবে পাচ্ছি না।’

আহত ভ্যানচালক রিজু অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি সন্ধ্যার দিকে উথলী বাজারে ভ্যানের ওপর বসেছিলাম। এসময় সাদিকুর রহমান বকুলের কিছু লোক লাঠি দিয়ে আমার ভ্যানে বাড়ি মারে। আমি তার প্রতিবাদ করায় তাদের হাতে থাকা লাঠি দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। আমি রক্তাত্ব অবস্থায় রাস্তায় পড়ে যায়। এসময় স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।’

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার আফরিন রহমান জানান, ‘জখম অবস্থায় আমরা তিনজনকে হাসপাতালে ভর্তি রেখেছি। আহতদের মধ্যে দুজনের মাথায় ১১টি ও ৬টি করে সেলাই দেয়া হয়েছে। আরেকজন হাতে সামান্য আঘাত পেয়েছেন। আমরা তাদেরকে পর্যবেক্ষণে রেখেছি। তবে তারা সবাই শঙ্কামুক্ত।’

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহতরা

উথলী বাজার কমিটির সভাপতি আসাদুর রহমান বলেন, ‘আমার বাজারের ব্যবসায়ীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে জিনিসপত্র ভাঙচুর ও বিনষ্ট করেছে। আমরা বাজার কমিটির পক্ষ থেকে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চায়। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, আমরা আইনের আশ্রয় নেব। আর এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না পেলে ব্যবসায়ীদের নিয়ে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলব।’

উথলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান বলেন, ‘আমি উথলী বাজারে যেয়ে শুনতে পারি সাদিকুর রহমান বকুলের সমর্থকরা এলাকার কিছু অসহায় মানুষকে মারধরসহ দোকানপাট ভাঙচুর করেছে। আসলে কী কারণে তিনি এ ধরণের কর্মকাণ্ড ঘটিয়েছেন, এটা আমার জানা নেই। তার এ ধরণের কর্মকাণ্ডে এলাকার সাধারণ মানুষ ভীতসন্ত্রস্ত। এ ঘটনার সঠিক বিচার হওয়া দরকার।’

জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল বলেন, ‘উথলীর ঘটনাটির বিষয়ে আমি জানি না। যদি এ ধরণের কোনো ঘটনা ঘটায়, তাহলে আমি তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আজাদুল ইসলাম আজাদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একটি শান্তিপ্রিয় দল। যদি কোনো ব্যক্তি দলের নাম ভাঙ্গিয়ে কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটায়, তার দায়ভার কিন্তু দল নিবে না। যে ব্যক্তি এ ধরণের কর্মকাণ্ড ঘটাবে, সমস্ত দায়ভার তাকেই নিতে হবে।’

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহত ব্যক্তিরা

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাদিকুর রহমান বকুল বলেন, ‘শেখ রাসেল কলেজ থেকে ৫ শ মোটরসাইকেল নিয়ে র‌্যালি শেষ করে জীবনননগর থেকে ফেরার পথে উথলী মোড়ে টগরের (চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগর টগর) লোকজন অতর্কিতভাবে পিছন থেকে হামলা করেছে। মিনি ট্রাক দিয়ে পেছন থেকে আমার নিরিহ চারটি ছেলেকে ধরে মারপিট করেছে। মোটরসাইকেল ভেঙ্গে দিয়েছে। এটার খবর পাওয়ার পরে আমরা গিয়ে ওদেরকে উদ্ধার করে নিয়ে এসেছি।

এরপরে টগরের লোকজন ও হান্নানের (উথলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান) ক্যাডার বাহিনী সিংনগরের নিরিহ একটা মানুষের গ্লাসের দোকান ভাঙচুর করেছে। নিজেরাই সবকিছু করে আমার ঘাড়ের ওপর চাপিয়েছে, আমি এই ঘটনা ঘটিয়েছি। সব ঘটনা তাদের সুপরিকল্পিত। আমি আহতদের চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে নিয়ে এসেছি। দুইজনের হাত ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। দুজনের হাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি চুয়াডাঙ্গা জেলার সমস্ত মানুষকে ভালোবাসি। আমি যেহেতু আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী এবং আশা রাখি আগামীতে এমপি হবো। জনগণের জানমালের ক্ষতি করা আমার কাজ না। জনগণের জান-মাল রক্ষা করা আমার দায়িত্ব। এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা আমি ঘটায়নি। আলী আজগর টগর ঘটনা ঘটিয়ে আমাকে দিয়ে ফায়দা লুটতে গেছে। এই জঘন্য ঘটনার আমি তীব্র নিন্দা জানাই।’

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান বলেন, ‘জীবননগর শহরে ককটেল বিস্ফোরণের বিষয়টি সঠিক না। উথলী বাজারে যে ঘটনা ঘটেছে, এ বিষয়ে থানায় এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আজকের চুয়াডাঙ্গা এর সংবাদ সবার আগে পেতে Follow Or Like করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা এর ফেইসবুক পেজ এ , আজকের চুয়াডাঙ্গা এর টুইটার এবং সাবস্ক্রাইব করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা ইউটিউব চ্যানেলে