আলমডাঙ্গার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করলেন চুয়াডাঙ্গার ডিসি-এসপি


চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৩, ২০২৩, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ
আলমডাঙ্গার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করলেন চুয়াডাঙ্গার ডিসি-এসপি

চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা ও পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ্ আল-মামুন আলমডাঙ্গার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেছেন। রোববার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যার দিকে স্টেশনপাড়া পূজামণ্ডপ কমিটির সভাপতি জয় বিশ্বাস, সম্পাদক দেবদাস বেদসহ নেতৃবৃন্দের সাথে সৌজন্য মতবিনিময়সহ পূজার সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন তাঁরা। পরে কালিদাসপুর পূজামণ্ডপে পরিদর্শনে গেলে মন্দির কমিটির সভাপতি বাবু শুশিল কুমার ভৌতিকা ও সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মনীন্দ্র নাথ দত্ত জেলা প্রশাসক ও তাঁর সফরসঙ্গীদের অভর্থ্যনা জানান। সেখানে জেলা প্রশাসক বেশ কিছুক্ষণ তাঁদের সাথে মতবিনিময় করে সার্বিক খোঁজখবর নেন। পরে জেলা প্রশাসক আলমডাঙ্গা রথতলা দুর্গামন্দির পরিদর্শনে যান। এসময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নাজমুল হামিদ রেজা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুর রহমান, সাইফুল ইসলাম সাইফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালন, আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, পৌর মেয়র হাসান কদির গনু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা নাহিদ, ওসি বিল্পব কুমার নাথ প্রমুখ।
এছাড়া রথতলা মন্দির কমিটির সভাপতি বিদ্যুৎ কুমার সাহা, সম্পাদক অশিম কুমার সাহা, উপজেলা পূজা উদ্যাপন কমিটির সভাপতি ডা. অমল কুমার বিশ্বাস, পরিমল কুমার কালু ঘোষ, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সম্পাদক বিশ্বজিৎ সাধু খাঁ, প্রশান্ত বিশ্বাস, পলাশ আচার্যসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসক বলেন, ‘আলমডাঙ্গা পূজা মন্দির পরিদর্শন করে দেখলাম এখানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভালো। এছাড়া হিন্দু-মুসলিম সকল ধর্মের লোক একসাথে ধর্মীয় উৎসব পালন করছে। এছাড়াও প্রতিটি মন্দিরে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। এমনটাই দেখতে চেয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’ চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার বলেন, ‘আমরা চুয়াডাঙ্গার প্রত্যেক উপজেলার বিভিন্ন মন্দির পরিদর্শন করেছি। আলমডাঙ্গায় মন্দির পরিদর্শনে এসে আমার একটা বিষয় খুবই ভালো লেগেছে, একটি মন্দিরের দায়িত্ব পালন করেন একজন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। এমন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশই তো দেখতে চেয়েছিলেন জাতির জনক। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি দেখে ভালো লেগেছে। আমরা প্রত্যেক মন্দিরে পুলিশ, আনসারসহ স্বেচ্ছাসেবক দল রেখেছি, যেন আপনারা নির্বিঘ্নে ধর্মীয় উৎসব পালন করতে পারেন।’
পরে কলেজপাড়া পূজামণ্ডপ পরিদর্শনে গেলে স্বাগত জানান শুভেন্দ সাহা নন্দ, সম্পাদক পরিমল কুমার কালু ঘোষ। সেখানে বেশকিছু সময় অতিবাহিত করেন। প্রতিটি মন্দিরে আনসার ও পুলিশ সদস্য সক্রিয় আছে দেখে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।

আজকের চুয়াডাঙ্গা এর সংবাদ সবার আগে পেতে Follow Or Like করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা এর ফেইসবুক পেজ এ , আজকের চুয়াডাঙ্গা এর টুইটার এবং সাবস্ক্রাইব করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা ইউটিউব চ্যানেলে