আলমডাঙ্গায় দিলীপ কুমারের পথসভায় হাজার হাজার নারী-পুরুষের গণজোয়ার


আজকের চুয়াডাঙ্গা ➤ নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২১, ২০২৩, ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ
আলমডাঙ্গায় দিলীপ কুমারের পথসভায় হাজার হাজার নারী-পুরুষের গণজোয়ার

চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালার পক্ষে আলমডাঙ্গা উপজেলায় গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা যুবলীগ, কৃষক লীগ, যুব মহিলা লীগ, উপজেলা ছাত্রলীগসহ হাজার হাজার নারী-পুরুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে আলমডাঙ্গা শহরের আল-তায়েবা মোড়ে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে উপজেলার খাসকররা, জামজামিসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গণসংযোগ শেষে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা আলমডাঙ্গা শহরে পৌঁছালে হাজার হাজার নেতা-কর্মী ও ‘ঈগল’ মার্কার কর্মী-সমর্থকরা তাকে ঘিরে আনন্দ-উল্লাস করতে থাকে এবং শহরজুড়ে বিশাল শোভাযাত্রা বের করে। পরে আলমডাঙ্গা শহরের আল-তায়েবা মোড়ে বিকেল পাঁচটায় এ পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডনের সভাপতিত্বে শোভাযাত্রা শেষে পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, ‘আলমডাঙ্গাবাসী বারবার আমাকে তাদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিচ্ছে। আজ ঈগল মার্কার এই পথসভায় হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি এটা প্রমাণ করে, আপনারা পরিবর্তন চান, আপনারা স্মার্ট আলমডাঙ্গা গড়তে চান।

আমিও কথা দিচ্ছি আমি ‘ঈগল’ মার্কা নিয়ে নির্বাচিত হবার পরই আলমডাঙ্গা উপজেলাকে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসিয়ে দেবো। গত ১৫ বছর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে উন্নয়নে ভাসিয়ে দিলেও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনবাসী সেই উন্নয়ন পায়নি। তাই আমি আপনাদের সন্তান হিসেবে এই আলমডাঙ্গার মানুষের ভাগ্য গড়তে চাই।’

দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, ‘আজ আমার সাথে যে নেতৃবৃন্দ, যেসব কর্মী-সমর্থক উপস্থিত আছেন, সবাই একেকজন একটা দিলীপ কুমার হয়ে ঈগল মার্কার বিজয়ে গ্রাম থেকে শহরে ঝাঁপিয়ে পড়ুন। কারণ আজকের এই হাজার হাজার নারী-পুরুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ প্রমাণ করে ঈগল মার্কার জয়জয়কার।’

পথসভায় আলমডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি রেজাউল হক তবা বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গা-আলমডাঙ্গার মানুষ একটি পরিবারের কাছে গত ১৫ বছর ধরে নির্যাতিত। আমরা আর নির্যাতিত হতে চাই না। আমরা মুক্তি চাই। আমাদের মুক্তি জন্য চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা ঈগল প্রতীক নিয়ে আমাদের মাঝে এসেছেন। আমরা আগামী ৭ জানুয়ারী ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে দিলীপ কুমার আগরওয়ালাকে জয়যুক্ত করে ঘরে ফিরব।’

পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান ফারুক অশ্রুসিক্ত নয়নে বলেন, ‘আমরা অনেক কষ্ট বুকে নিয়ে আজ এখানে উপস্থিত হয়েছি। আমরা নেতাদের দ্বারা ব্যবহার হয়েছি। আর ব্যবহার হতে চাই না। আমরা পরিবর্তন দেখতে চাই। আপনারা আগামী ৭ জানুয়ারী দিলীপ কুমার আগরওয়ালার ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে পরিবর্তন করুন।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান কাওসার আহম্মেদ বাবলু বলেন, ‘আজ আলমডাঙ্গার গণজোয়ার প্রমাণ করে ঈগল মার্কার জয় নিশ্চিত। আপনারা অবশ্যই ভোট কেন্দ্রে যাবেন এবং ঈগল প্রকীকে ভোট দেবেন।

পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু বলেন, ‘আমি দীর্ঘ বছর আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলাম। আপনারা নির্ভয়ে ঈগল প্রতীকের ভোট চাইবেন। আগামী ৭ জানুয়ারি আপনারা ভোট দিয়ে দিলীপ কুমার আগরওয়ালার ঈগল প্রতীককে নির্বাচিত করবেন।’

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন বলেন, ‘আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা। আমরা দীর্ঘ বছর আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। আমরা সবাই আওয়ামী লীগের কর্মী। গত ১৫ বছরে চুয়াডাঙ্গার এই আসনের এমপির নিকট থেকে আমরা কিছুই পায়নি। আমরা দিলীপ কুমার আগরওয়ালাকে ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করব। আলমডাঙ্গার উন্নয়ন নিশ্চিত করব।’

এছাড়া পথসভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ্ব শেখ সামসুল আবেদিন খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাড. আব্দুল মালেক, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম, জেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী আফরোজা পারভিন,

জেলা কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল হুসাইন দিপক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী রবিউল হক, জেলা কৃষক লীগের সহসভাপতি আশাদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়া সম্পাদক মহিদুল ইসলাম মহিদ, সাবেক খাদিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম মণ্টু,

পৌর আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল লতিফ, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হক তবা, পৌর ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল হোসেন বাবু, কালিদাসপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা কামরুজ্জামান সামিম, কালিদাসপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইমদাদ হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সাজ্জাদুল ইসলাম খান স্বপন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকার,

পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী চন্দন, যুবলীগ নেতা হাবিবুর রহমান রুবেল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা নিপ্পন, ছাত্রলীগ নেতা টিটন, সজীব, সুরুজ, শাকিল, তপুসহ চুয়াডাঙ্গা জেলা, আলমডাঙ্গা উপজেলা, পৌর আওয়ামী যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে প্রথম থেকেই আলোচনায়। ঈগল প্রতীক নিয়ে তার জয়ে সম্ভাবনাই বেশি।

আজকের চুয়াডাঙ্গা এর সংবাদ সবার আগে পেতে Follow Or Like করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা এর ফেইসবুক পেজ এ , আজকের চুয়াডাঙ্গা এর টুইটার এবং সাবস্ক্রাইব করুন আজকের চুয়াডাঙ্গা ইউটিউব চ্যানেলে